সর্বজনীন আচরণবিধি/২০২১-এর আলোচনা/নীতিমালার প্রয়োগ

From Meta, a Wikimedia project coordination wiki
Jump to navigation Jump to search
This page is a translated version of the page Universal Code of Conduct/2021 consultations/Enforcement and the translation is 100% complete.
Other languages:
Bahasa Indonesia • ‎Bahasa Melayu • ‎Deutsch • ‎English • ‎Yorùbá • ‎français • ‎italiano • ‎polski • ‎العربية • ‎नेपाली • ‎मैथिली • ‎हिन्दी • ‎বাংলা • ‎한국어
সর্বজনীন আচরণবিধি

এই পাতায় সর্বজনীন আচরণবিধি প্রকল্পের ২য় ধাপের স্থানীয় ভাষা সম্প্রদায়গুলোর সাথে আলোচনার সারাংশ উপস্থাপিত হয়েছে। আলোচনাগুলো ২০২১ সালের জানুয়ারি শেষভাগ থেকে মার্চের শুরু নাগাদ পর্যন্ত চলমান ছিলো। আলোচনার মূল বিষয় ছিলো কীভাবে ঐ ভাষা সম্প্রদায়গুলোতে সর্বজনীন আচরণবিধির নীতিমালা প্রয়োগ করা সম্ভব। আলোচনাগুলোর ঐ সম্প্রদায়গুলোর সচারচর ব্যবহৃত আলোচনা পাতা ও মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। সুনির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের আলোচনার সারাংশগুলো নিচে পাওয়া যাবে।

  1. আরবী
  2. আফ্রিকান
  3. বাংলা + অসমীয়া + Bishnupriya
  4. উইকিমিডিয়া কমন্স
  5. কোরিয়ান
  6. ইগ্‌বো + হাউসা + টোয়াই
  7. ইন্দোনেশীয়
  8. ইতালিয়
  9. মৈথিলি + নেওয়ারি + Bhojpuri + Doteli
  10. মালয়
  11. নেপালী
  12. পোলিশ
  13. সাঁওতালি
  14. উইকিউপাত্ত
  15. ইওরুবা

ভূমিকা

অক্টোবর ২০২০-এ সম্প্রদায়ের সাথে উন্মুক্ত মতামত গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষে খসড়া প্রণয়নকারী দল সর্বজনীন আচরণবিধির নীতিমালা প্রণয়ন করে। পরবর্তীতে খসড়া নীতিমালাটি উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব ট্রাস্টির কাছে পর্যালোচনার জন্য প্রেরণ করা হয়। সর্বজনীন আচরণবিধির প্রকল্প দল এরপর ২য় ধাপের কার্যক্রমের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে যার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের সাথে এই বৈশ্বিক নীতির সম্ভাব্য প্রয়োগ পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা। এমন এক সেট সর্বজনীন নির্দেশাবলী তৈরি করা ছিলো যথেষ্ট জটিল একটি কর্মকাণ্ড, বিশেষ করে যখন এই নির্দেশবলীগুলো উইকিমিডিয়া আন্দোলনের সর্বত্র প্রযোজ্য হবে। খসড়া প্রণয়নের সময়-ই এটি পরিষ্কার হয়ে যায় যে এই নীতির সম্ভাব্য প্রয়োগ পদ্ধতি তৈরির কাজটি আরও কঠিন হবে।

এটি বিশেষভাবে এমন একটি ব্যবস্থার জন্য আরও বেশি সত্যি যখন এই নীতিমালাকে ইতোমধ্যেই স্থানীয়ভাবে প্রতিষ্ঠিত পরিচালনা প্রক্রিয়ার মধ্যে সুন্দরভাবে কাজ করতে হবে। এই চ্যালেঞ্জগুলো সম্পর্কে জ্ঞাত হয়েই ট্রাস্ট অ্যান্ড সেফটি দল বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ইতোমধ্যেই থাকা নীতিমালাগুলোর প্রয়োগের পদ্ধতি সম্পর্কে ভালোভাবে ধারণা লাভের উদ্দেশ্যে গবেষণা পরিচালনা করে। উইকিমিডিয়ার জটিল কর্মপরিবেশ ও সম্প্রদায়গুলোর বৈচিত্রময় কর্মপন্থার কারণে সম্প্রদায়গুলোর পরিচালনা ব্যবস্থার ফলপ্রসূতা নির্ণায়ক উপাদানগুলো বুঝে উঠা ও ব্যাপ্তি নির্ধারণ করাও ছিলো যথেষ্ট কষ্টসাধ্য।

বিভিন্ন সম্প্রদায়ে প্রচলিত নীতিমালা প্রয়োগের পদ্ধতিগুলো বণ্টন, সঠিকভাবে উপলব্ধি, পার্থক্য চিহ্নিত করার উদ্দেশ্যে প্রকল্প দল যতোটা সম্ভব তথ্য আহরণ করে। এর মধ্যে রয়েছে এমন ধরনের সম্প্রদায়গুলো খুঁজে বের করা যাদের আরবিট্রেশন কমিটি, ব্যবহারকারী পরীক্ষক, বা ব্যুরোক্র্যাট রয়েছে যারা আচরণগত নীতিমালা ভঙ্গের অভিযোগগুলো নিয়ে কাজ করেন। প্রকল্প দল বিভিন্ন ধরনের বিভিন্ন ধরনের বিষয় বিশ্লেষণ করেছে যার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রশাসকদের আলোচনাসভা বা নোটিশ বোর্ডের সক্রিয়তার মাত্রা, আপিল প্রক্রিয়ার উপস্থিতি, এবং কোনো একটি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে গড়ে কতোগুলো বাধাপ্রদানের সংখ্যা। এ সকল তথ্য বিবেচনায় এনে দলটি সম্প্রদায়গুলোকে তিনটি ভাগে ভাগ করেছে যেগুলো হচ্ছে: নীতিমালা প্রয়োগের কার্যকরী ব্যবস্থা সম্বলিত সম্প্রদায়, নীতিমালা প্রয়োগের পরিমিতরূপে কার্যকরী ব্যবস্থা সম্বলিত সম্প্রদায়, এবং এমন সম্প্রদায় যেগুলোর নীতিমালা প্রয়োগের ব্যবস্থা খুবই দুর্বল বা একেবারেই নেই।

প্রকল্প দল এই তিন ধরনের সম্প্রদায় থেকে তিন জন আলোচনা সহায়তাকারী বা ফ্যাসিলিটেটর নিয়োগ প্রদান করে। ফ্যাসিলিটেটর নিয়োগের ক্ষেত্রে তার নিজ প্রকল্পে অভিজ্ঞতার মাত্রা, ভাষাগত দক্ষতা, এবং উইকিমিডিয়ার অন্যান্য সম্প্রদায়ের উপর তাদের জ্ঞানের পরিধি বিবেচিত হয়েছিলো।

২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে সর্বজনীন আচরণবিধি প্রকল্প দল স্থানীয় ভাষা সম্প্রদায়ে আলোচনা শুরু করে। নয়জন বহুভাষী ফ্যাসিলিটেটরের সহায়তায় সর্বমোট একুশটি ভাষা সম্প্রদায়ে এই আলোচনা পরিচালনা করা সম্ভব হয় যার মধ্যে উইকিউপাত্ত ও উইকিমিডিয়া কমন্সও ছিলো।

যোগদানের হার

Engagement from different communities.png

আলোচনাগুলো বিভিন্ন লক্ষ্য ভাষা সম্প্রদায়গুলোতে একই সময়ে শুরু হয়। সম্প্রদায়ের আলোচনাসভায় ঘোষণা প্রদানের মধ্যে এটি শুরু হয়। পরবর্তীতে নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের চর্চা অনুসারে অন্যান্য মাধ্যমেও আলোচনা শুরু হওয়ার ঘোষণা প্রদান করা হয়।

সামগ্রিকভাবে ছয় সপ্তাহব্যাপী এই আলোচনা-শলামর্শ প্রক্রিয়াটি তিনটি মূল ধাপে ভাগ করা হয়। প্রথম ধাপে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করে সম্প্রদায়ের আলোচনাসভা এবং বহুল ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বার্তা প্রদান করা হয়। এজন্য আলোচনা শুরুর বিষয়ে অবগত করে ও আলোচনা যে সর্বজনীন আচরণবিধির প্রয়োগের বিষয়কে কেন্দ্র করে পরিচালিত সে বিষয়ে অবহিত করে বার্তা দেওয়া হয়। জরিপ চালু করা ছিলো এই আলোচনাপর্বের দ্বিতীয় ধাপ। আমাদের পর্যবেক্ষণ এই যে, ব্যবহারকারীদের বড়ো একটি অংশ তাদের উদ্বেগের বিষয়গুলো ও আইডিয়াগুলো বেনামে প্রকাশ করেন। এজন্য এই পদ্ধতিতে মতামত গ্রহণের উপায়টি সর্বজনীন আচরণবিধি প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপেও উন্মুক্ত ছিলো। বেশিরভাগ জরিপগুলো সাইটনোটিশ হিসেবে ও আলোচনাসভায় প্রকাশ্যে জানানো হয়েছিলো যা বেশিরভাগ ব্যবহারকারীকে এ জরিপের বিষয়ে অবগত করতে সহায়তা করে। আলোচনার তৃতীয় ধাপে নিজস্ব মতামত গ্রহণের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছি। এই পর্বে সম্প্রদায়ের আগ্রহী সদস্যদের সাথে দলগত বা এককভাবে অনলাইন মিটিং আয়োজন করা হয়। এর ফলে নিজ নিজ সম্প্রদায়ে সর্বজনীন আচরণবিধি প্রয়োগের বিষয়ে সমবেতভাবে চিন্তাভাবনা ও সরাসরি কথা বলার মাধ্যমে মতামত গ্রহণ করা হয়।

যোগদানের মাধ্যম

সর্বজনীন আচরণবিধির প্রথম ধাপের আলোচনার মতো আলোচনায় যোগদানের মাধ্যম প্রয়োজন, পছন্দ, এবং নির্দিষ্ট সম্প্রদায় ও অংশগ্রহণকারী চর্চা অনুযায়ী ঠিক করা হয়। সম্প্রদায়ের সদস্যদের জন্য স্বস্তিকর একটি আলোচনার পরিবেশ নিশ্চিত করতে যতোটা বেশি সম্ভব বিভিন্ন ধরনের প্রক্রিয়া ও যোগাযোগের মাধ্যম এই আলোচনায় সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করা হয়েছে।

আলোচনার সময়জুড়ে যোগাযোগের জন্য বিভিন্ন ধরনের মাধ্যম ব্যবহৃত হয়েছিলো

আলোচনা সমন্বয়কারী দল সম্প্রদায়ের সর্বমোট ৩৫৫৩ জন সদস্যের কাছ থেকে মতামত গ্রহণ করেছে। এই সংখ্যাটি কতোগুলো সাড়া বা মতামত পাওয়া গেছে সেটিকে নির্দেশ করে না, বরং সর্বমোট কতোগুলো ব্যবহারকারী আলোচনায় অংশগ্রহণ করেছে সেটি নির্দেশ করে। কোনো ব্যবহারকারী একাধিকবার মতামত প্রদান করলেও সেটিকে এক জন মতামত প্রদানকারী হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়াও একজন ব্যবহারকারীর বিভিন্ন মাধ্যমে আলোচনায় অংশগ্রহণের আতিশয্যও দূর করা হয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, যদি কোনো ব্যবহারকারী বিভিন্ন মাধ্যমে (আলোচনাসভা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের চ্যাট, গ্রুপ কল, একক সভা, ইত্যাদি) আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, সেটিকেও একজন ব্যবহারকারী হিসেবে ধরা হয়েছে। তবে এ ধরনের পদ্ধতি জরিপের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা সম্ভব হয়নি, কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তারা বেনামে অংশগ্রহণ করেছেন। তাই এটি অনুমিত যে যেসকল ব্যক্তি জরিপে অংশগ্রহণ করেছে তারা অন্তত একটি মাধ্যমে আলোচনা অংশগ্রহণ করেছেন। জরিপে অংশগ্রহণকৃত ব্যবহারকারী সংখ্যা ২৯৯৫ জন, এবং অন্যান্য মাধ্যমে অংশগ্রহণকৃত ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫৫৮।

আলোচনার সারাংশ

স্থানীয় ভাষা সম্প্রদায়ের আলোচনাগুলোর সর্বজনীন আচরণবিধির সম্ভাব্য প্রয়োগ পদ্ধতি, প্রয়োগের দল, এবং হয়রানির স্বীকার ব্যক্তিদের জন্য সহায়তামূলক ব্যবস্থা সম্পর্কে বৈচিত্রময় ধারণা ও পরামর্শ প্রদান করেছে।

ভাষা সম্প্রদায়গুলোর আলোচনার সারাংশগুলোর নিচে আলাদাভাবে প্রকাশিত হয়েছে:

  1. আরবী
  2. আফ্রিকান
  3. বাংলা + অসমীয়া + Bishnupriya
  4. উইকিমিডিয়া কমন্স
  5. কোরিয়ান
  6. ইগ্‌বো + হাউসা + টোয়াই
  7. ইন্দোনেশীয়
  8. ইতালিয়
  9. মৈথিলি + নেওয়ারি + Bhojpuri + Doteli
  10. মালয়
  11. নেপালী
  12. পোলিশ
  13. সাঁওতালি
  14. উইকিউপাত্ত
  15. ইওরুবা

মতামত

Breakdown of demographics by gender identities.png
Breakdown of demographics by rights.png

প্রত্যাশা অনুযায়ী, দলটি সর্বজনীন আচরণবিধির কার্যকরী প্রয়োগের জন্য বিভিন্ন ধরনের বৈচিত্রময় ধারণা লাভ করেছে। দ্বিতীয় ধাপের আলোচনার মূল উদ্দেশ্য ছিলো সর্বজনীন আচরণবিধির প্রয়োগ—যা ছিলো একটি উন্মুক্ত আলোচনা। এর অর্থ হচ্ছে এই আলোচনায় সম্প্রদায়ের সদস্য ও ফ্যালিটেটরদের মধ্যে মতামতের আদান-প্রদান হয়েছে। যেহেতু এটি ছিলো এক প্রকার সংলাপ, তাই নীতিমালার সম্ভাব্য প্রয়োগ ও প্রয়োগ দল নিয়ে প্রাপ্ত আইডিয়াগুলোর পরিমাণ নির্ণয় করা কষ্টকর ছিলো। সম্প্রদায় এ বিষয়ে একমত যে সর্বজনীন আচরণবিধি কার্যকর হওয়ার জন্য একটি গ্রহণযোগ্য প্রয়োগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে প্রয়োগ ব্যবস্থা কেমন হবে সে বিষয়ে প্রাপ্ত ধারণাগুলোর মধ্যে অনেক ভিন্নতা ছিলো। কেউ কেউ তাদের মতামত নিশ্চয়তার সাথে প্রদান করেছিলেন, আবার কারও ক্ষেত্রে তা ছিলো উপলব্ধি। আলোচনায় কোনো পরিষ্কার সর্বসম্মত পছন্দ ছিলো না, আবার কোনো সমন্বিত বিরোধিতাও ছিলো না। এটি আঁচ করা গেছে যে, সম্প্রদায় মনে করে পুরো উইকিমিডিয়া জুড়ে একটি নির্দিষ্ট কাঠামো বাস্তবায়ন করা বাস্তবসম্মত হবে না। যদি বাস্তবায়িত হয়, এ ধরনের ব্যবস্থাকে একাধিক পরিবর্তন ও সংশোধনের মধ্য দিয়ে যেতে হবে, যতোক্ষণ না পর্যন্ত তা সম্প্রদায়ের জন্য গ্রহণযোগ্য ও কার্যকরী হিসেবে বিবেচিত হয়।

প্রয়োগের ব্যবস্থা সম্পর্কে জানানো আইডিয়াগুলো নিচে প্রদান করা হলো

১. সম্প্রদায়ের মধ্যে স্থানীয় দল তৈরি করা

আচরণগত সমস্যা ও কোনো বিষয়ে গভীরভাবে দৃষ্টিপাত করার জন্য একটি স্থানীয় দল তৈরির ধারণাটি প্রায় সকল ভাষা সম্প্রদায়ের অনেক সদস্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পছন্দ। কিছু সম্প্রদায় স্থানীয় দলটিকে অনেকটা আর্বিট্রেশন কমিটি বা সালিশি দলের মতো একটি ব্যবস্থা আশা করেছেন, আবার অনেকে আশা প্রকাশ করেছেন যে এটি হবে কয়েকজন প্রশাসকের সমন্বয়ে তৈরি একটি দল যাদের কাজ হবে শুধুমাত্র আচরণগত সমস্যার প্রতি দৃষ্টি আরোপ করা। এছাড়াও কিছু সম্প্রদায় শুধুমাত্র সর্বজনীন আচরণবিধির প্রয়োগ দেখার জন্য একট নির্দিষ্ট দল তৈরির পক্ষে সমর্থন প্রদান করেছেন যাতে ইতোমধ্যেই থাকা কার্যনির্বাহীদের উপর অতিরিক্ত কাজের বোঝা না পড়ে। তবে পুরো আলোচনা-শলাপরামর্শ জুড়ে এ বিষয়ে জোর প্রদান করা হয়েছে যে বা যারাই হয়রানি ও অপব্যবহারের অভিযোগগুলো নিয়ে কাজ করবেন তাদের সাংস্কৃতিক ও ভাষাগত প্রেক্ষাপটের বিষয়ে ধারণা থাকতে হবে।

এই পছন্দের জন্য সম্প্রদায়ের অনেক সদস্য এটিও জানিয়েছেন যে এমন একটি দলকে কার্যকরীভাবে কাজ করতে হলে তাদের ফাউন্ডেশনের কাছ থেকে সহায়তা প্রয়োজন যেনো স্থানীয়ভাবে বিষয়গুলো সমাধান করতে তারা নিজেদের সরঞ্জাম ও সঙ্গতি বৃদ্ধি করতে পারে।

প্রয়োগের ক্ষেত্রে আমি চাই যে আর্বিট্রেশন কমিটিসহ প্রকল্পগুলো স্বশ্বাসিত/স্বাধীন থাকবে, এটি এই অর্থে যে বহিরাগত কেউ, সর্বজনীন আচরণবিধির অজুহাতে, ঐ প্রকল্পগুলোতে কোনো ব্যবহারকারীকে তাদের ঐ প্রকল্পের কোনো কর্মের জন্য বাধা / বৈশ্বিক বাধা (বাধা ও তালাবদ্ধ) প্রদান করতে পারবে না। [...] আমার মতে, স্থানীয় সম্প্রদায়গুলো স্ব-নিয়ন্ত্রিত থাকবে; শুধুমাত্র মারাত্মক কোনো ক্ষেত্রেই শুধুমাত্র উইকিমিডয়া ফাউন্ডেশন হস্তক্ষেপ করতে পারে; এবং এটি বর্তমানে পরিবর্তন করা অসম্ভাব্য কারণ উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন এখন তথাকথিত অফিস অ্যাকশনের সহায়তায় হস্তক্ষেপ করতে পারে।

— পোলীয় সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

যেহেতু সর্বজনীন আচরণবিধি ও স্থানীয় নীতিমালার মধ্যে মিল রয়েছে তাই, প্রশাসকবৃন্দ ইতোমধ্যেই সর্বজনীন আচরণবিধিতে নির্দেশিত কিছু অগ্রহণযোগ্য আচরণে বিরূদ্ধে পদক্ষেপে গ্রহণ করেন। এ ধরনের অভিযোগ প্রদানের ক্ষেত্রে প্রশাসকবৃন্দই সবচেয়ে সাধারণ পছন্দ। আমি এ বিষয়ে চিন্তিত যদি স্টুয়ার্ডদের এ ধরনের অভিযোগ দেখভাল করার দায়িত্ব প্রদান করা হয়, কারণ সেক্ষেত্রে পুরো উইকিমিডিয়া সম্প্রদায় থেকে যে পরিমাণ অনুরোধ আসবে তা তাদেরকে নিমজ্জিত করে ফেলবে। আমি এটিও মনে করি না যে নতুন একটি বৈশ্বিক দল প্রয়োজন, কারণ ইতোমধ্যে একই ধরনের কিছু ব্যবহারকারী দল রয়েছে যারা এই ধরনের পরিস্থিতি নিয়ে কাজ করে।

— উইকিউপাত্ত সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

২. বৈশ্বিক প্রয়োগ দল তৈরি

স্থানীয় প্রয়োগ দলের উপরে বৈশ্বিক প্রয়োগ থাকবে কী থাকবে না সে বিষয়ে সম্প্রদায়ের কাছ থেকে বিভক্ত মতামত পাওয়া গেছে। সম্প্রদায়ের কিছু সদস্যের মতে সর্বজনীন আচরণবিধির মতো বৈশ্বিক একটি নীতির সফল প্রয়োগের জন্য বৈশ্বিক একটি দেখভাল করার দল থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আবার সম্প্রদায়ের অনেক সদস্য এটি পরিষ্কার করে জানিয়েছেন যে তারা ফাউন্ডেশনের মধ্যে থাকা কোনো দল চান না বা ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রণীত কোনো দলও চান না। বেশিরভাগ মন্তব্যে সম্প্রদায় কর্তৃক নির্বাচিত একটি বৈশ্বিক আর্বিট্রেশন বা সালিশি দলের পক্ষে মতামত এসেছে। এছাড়াও এরকম একটি দলের গঠন, সদস্য বাছাই প্রক্রিয়া, এবং সদস্যদের মেয়াদ যেনো বিশদভাবে বিবেচনা করা হয় সে বিষয়েও মতামত এসেছে।

আমি সর্বজনীন আচরণবিধির প্রয়োগের জন্য ন্যায়পাল কমিশন গঠন করা সমর্থন করি। সম্ভবত প্রশাসকগণ এর প্রয়োগে সাহায্য করতে পারেন। যদি এমন সম্পাদকদের মাথে আচরণগত নীতিমালা ভঙ্গের বিষয়টি দেখা যায়, তা এই প্রক্রিয়ায় সমাধান করা যেতে পারে। আলোচনা শুরু হওয়ার পর, সম্ভবত আমার প্রথম প্রশ্নটি হবে কীভাবে একটি ন্যায়পাল কমিশন গঠন করা যায়।

— ইন্দোনেশীয় সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

আমার মতে, সম্প্রদায় থেকে নির্বাচিত কিছু ব্যক্তির একটি দলকে (তাদের প্রশাসক হতে হবে এমন নয়) এ কাজের জন্য দায়িত্ব দেওয়া যেতে পারে যারা ফাউন্ডেশনের সাথে সরাসরি সম্পর্ক রাখবেন।

— আরবি সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

৩. স্থানীয় ও বৈশ্বিক প্রয়োগদলের সমন্বয়

সর্বজনীন আচরণবিধি প্রয়োগের জন্য একটি অন্যতম জনপ্রিয় আইডিয়া ছিলো স্থানীয় রেজোলিউশন দল তৈরির মাধ্যমে বৈশ্বিক দল পর্যন্ত একটি একটি সুনির্দিষ্ট কার্যপ্রণালী তৈরি করা। সম্প্রদায়গুলো এই মতামত প্রদান করেছে যে, কিছু ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রয়োগ দল আচরণগত নীতিমালা লঙ্ঘনের জন্য প্রযোজ্য বা যথাযথ দল নাও হতে পারে। এধরনের সুনির্দিষ্ট কিছু উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে:

  • এমন ক্ষেত্রে যেখানে একজন প্রশাসক বা প্রয়োগ দলের একজন সদস্য জড়িত
  • এমন ক্ষেত্রে যেখানে আক্রান্ত ব্যক্তি স্থানীয় দলের কাছে অভিযোগ প্রদান করতে নিরাপদ বোধ করেন না
  • এমন ক্ষেত্রে যে বিষয়টি অত্যন্ত জটিল

এক্ষেত্রে একটি আপিল প্রক্রিয়া তৈরির জন্য জোরালো পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে যেনো যেসকল অভিযোগ প্রদানকারী অভিযোগটি যেভাবে সমাধান করা হয়েছে সে বিষয়ে সন্তুষ্ট নন, তারা বৈশ্বিক কোনো দলের কাছে পর্যালোচনার জন্য আবেদন করতে পারেন।

বৈশ্বিক দলটি কাজ করবে একটি আপিল দলের মতো যারা তখনই কোনো সমস্যা বিবেচনা করবেন যেটি স্থানীয় সালিশ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সমাধান করা সম্ভব হয়নি।

— ইয়োরুবা সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

(সম্প্রদায়ের) সকল পর্যায়ে, সম্প্রদায় থেকে শুরু করে উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন পর্যন্ত সর্বজনীন আচরণবিধির লঙ্ঘন দেখার জন্য একটি দল/সেল/ডেস্ক থাকা দরকার। সম্প্রদায়ের ক্ষেত্রে এই দলের সদস্যরা নিবন্ধিত ব্যবহারকারীদের দ্বারা নির্বাচিত হতে পারে। এ ধরনের দলের সদস্য ৪-৫ জনের বেশি হওয়া উচিৎ হবে না, এবং এদের মধ্যে অবশ্যই একজন নারী সদস্য থাকা উচিৎ। নারী সম্পাদকের সাথে জড়িত ঘটনা বা অভিযোগ অবশ্যই একজন মনোনীত নারী সদস্যদের দ্বারা বিবেচিত হতে হবে। এ ধরনের দলে সদস্যপদ পাওয়ার জন্য সুনির্দিষ্ট মানদণ্ড থাকতে হবে।

— সাঁওতালি সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

৪. ফাউন্ডেশনের ট্রাস্ট অ্যান্ড সেফটি দল

প্রাপ্ত মতামতগুলোর একটি খুব ছোট অংশ এই মতামত দিয়েছেন যে কিছু সম্প্রদায় ট্রাস্ট অ্যান্ড সেফটি দলকে সার্বিকভাবে প্রয়োগ প্রক্রিয়ায় রাখার বিরোধী নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই পছন্দটি এমন সব ক্ষেত্রের জন্য যখন কোনো নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের নিজস্ব প্রয়োগ পদ্ধতি তৈরির সামর্থ্য নেই।

বৈশ্বিক দল ও ট্রাস্ট অ্যান্ড সেফটির সমন্বয়ে একটি দল রাখা যেতে পারে

— কমন্স সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

দিন শেষে আমরা সবাই স্বেচ্ছাসেবী, আমাদের অনেক সময় রয়েছে। আমার কি কোনো একটি দলের অন্তর্ভুক্ত হয়ে শ্রম ও আইন নিয়ে কথা বলার ইচ্ছা আছে? আসলে না। এটি আমার চাকরি, আমার পেশা। [...] বিষয়ে নিবন্ধ লিখে আমি নিজেকে তৃপ্তি দেই। আমরা বিগত কয়েক বছর ধরে আফ্রিকান উইকিপিডিয়াতে একটি দল তৈরির চেষ্টা করে যাচ্ছি। [...] মানুষেরা রাজনীতিতে আগ্রহী নয়, বরং জ্ঞানে, পাখি, মাছ, বাধা এবং সেতু, এবং রাস্তায়। কেউ রাজনীতিতে আগ্রহী নয়, আমরা এ পেছনে দৌড়ে ইতোমধ্যেই বেশ কিছু সময় অপচয় করেছি।

— আফ্রিকান সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

৫. অভিযোগের ব্যবস্থা

ব্যবহারকারীদের বেনামে বা পরিচয় গোপন রেখে অভিযোগ প্রদানের সুবিধা থাকার বিষয়ে ঐকমত্য ছিলো। আলোচনার মাধ্যমে অনেক সম্প্রদায়ে জানা গিয়েছে যে, হয়রানির ঘটনাগুলোর একটি বড়ো অংশের ক্ষেত্রে প্রশাসক বা এ সংক্রান্ত বিষয়ের জন্য নিযুক্ত দলের কাছে অভিযোগ শুধুমাত্র নিরাপদ অভিযোগ প্রদানের ব্যবস্থা না থাকার কারণে করা হয়নি। এটি ছোট সম্প্রদায়ের জন্য বিশেষভাবে প্রযোজ্য। ফ্যাসিলিটেটরগণ আবিষ্কার করেছেন যে, তাদের সম্প্রদায়গুলোতে যে পরিমাণ হয়রানির অভিযোগ প্রদান করা হয়, তার থেকেও বেশি পরিমাণ হয়রানির ঘটনা ঘটে। এটি কিছু ফ্যাসিলিটেটরদের জন্যও নতুন খবর ছিলো যদিও তারা তাদের সম্প্রদায়ে দশ বছরেরও বেশি সময় পার করে ফেলেছেন। এটি নির্দেশ করে যে, সাহসী হয়ে কথা বলার পেছনে যে ভয়ের বিষয়টি যে সম্প্রদায়ের গভীরে দৃঢ়ভাবে গেঁথে গেছে। এর পাশাপাশি নানাবিধ কারণ রয়েছে যা অভিযোগ প্রদান করাকে কঠিন ও জটিল করে তোলে।

সম্প্রদায়গুলো নিচের অবস্থাগুলো সম্পর্কে জানিয়েছে যেসব ক্ষেত্রে অভিযোগ প্রদান করা কষ্টসাধ্য:

  • অপ্রাপ্তবয়স্ক হিসেবে অভিযোগ প্রদান করা।
  • এমন ক্ষেত্রে অভিযোগ প্রদান যেখানে ভিন্ন আইনব্যবস্থা রয়েছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে প্রচলিত পরিস্থিতি হচ্ছে, সেখানে অপরাধী ও আক্রান্ত ব্যক্তি দুটি ভিন্ন আইন ব্যবস্থার আওতাভুক্ত।
  • যৌন হয়রানি বিষয়ক সমস্যার অভিযোগ প্রদান। এ ধরনের অভিযোগ সাধারণত খুব প্রচলিত নয়, তবে এটি এজন্য যে, অভিযোগ দায়েরের ফলে ইতোমধ্যেই থাকা কঠিন পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটে কঠিনতর হওয়ার ভীতি কাজ করে।
  • ঘটনা সংঘটিত হওয়ার অনেক পরে অভিযোগ প্রদানের জটিলতা।
  • উইকিমিডিয়ার সুপরিচিত ও সুগঠিত অবস্থান রয়েছে এমন ব্যক্তিবর্গের বিরূদ্ধে অভিযোগ প্রদান। এটি একই সাথে বিপরীত ক্ষেত্রেও সত্যি। যারা সুনির্দিষ্ট ক্ষমতাবান কোনো অবস্থানে রয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে অভিযোগ প্রদান করাও সহজ নয়।
  • পুরুষ ব্যবহারকারীরা প্রায় সময়-ই যৌন হয়রানি বিষয়ে অভিযোগ প্রদানে অনিচ্ছুক।
  • অভিযোগের ক্ষেত্রে ভাষাগত বাধা।

অন্যান্য সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে যেমনটি দেখা যায়, তেমনভাবে আলাপ পাতায় সহজে দেখা যায় এমনভাবে "অভিযোগ প্রদান" বোতাম থাকতে পারে। সেখানে ক্লিক করার মাধ্যমে এমন একটি পাতা আসবে যেখানে ব্যবহারকারী কী ঘটেছে তা বিস্তারিত জানিয়ে অভিযোগ প্রদান করতে পারে।

— ইতালীয় সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

বাড়তি একটি অভিযোগ প্রদানের ব্যবস্থা থাকা উচিত যার মধ্যে গোপন (সুরক্ষিত) অভিযোগ প্রদানের ব্যবস্থাও অন্তর্ভুক্ত। তবে গোপন অভিযোগ প্রদানের ব্যবস্থা আচরণগত নীতি লঙ্ঘনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকা উচিত।

— কোরীয় সম্প্রদায়ের একজন সদস্য

উদ্বেগ

অনেক ব্যবহারকারী এটি জানিয়েছেন যে তারা উইকিমিডিয়া প্রকল্পসমূহে তাদের কাজের জন্য হয়রানির সম্মুখীন হয়েছেন বা সম্মুখীন হতে দেখেছেন। কিন্তু এই ঘটনাগুলোর ব্যাপারে অভিযোগ প্রদান করা সম্ভব হয়নি, বা অভিযোগ প্রদান করা হলেও কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি কেননা ঘটনাগুলো উইকিমিডিয়ার বাইরে ঘটেছে। অংশগ্রহণকারী ব্যবহারকারীদের একটি বড়ো অংশ এ বিষয়ে জোর দিয়েছেন যেনো এ ধরনের নীতিমালার লঙ্ঘনগুলো যেনো সর্বজনীন আচরণবিধির আওতাভুক্ত করা হয়।

কমপক্ষে একটি সম্প্রদায় সর্বজনীন আচরণবিধির বৈষম্যবিরোধী নীতিমালার বিপক্ষে মতামত প্রদান করেছে। এই সম্প্রদায়টি খোলাখুলিভাবে অস্বীকার করেছে যে তাদের সম্প্রদায়ে নন-বাইনারি সম্পাদক বা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কোনো সম্পাদক রয়েছে। তদুপরি, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ নিজেদেরকে নন-বাইনারি হিসেবে প্রকাশ করেছেন। ফ্যাসিলিটেটরের মতামত অনুযায়ী, এই সংখ্যা প্রকাশ করা হলে তা সেই সম্প্রদায়কে আরও বেশি দ্বিধাবিভক্ত করবে।

নারী অংশগ্রহণকারী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অন্তর্গত ব্যবহারকারীদের অংশগ্রহণের হার ছিলো বরাবরের মতোই কম। তার উপর যারা অংশ নিয়েছেন তাদের বেশিরভাগ-ই প্রকাশ্যে নয়, বরং ব্যক্তিগতভাবে অংশ নিয়েছেন। একটি সম্প্রদায়ে অনেক নারী অংশগ্রহণকারী জরিপে নিজেদেরকে প্রকাশ করেছেন তবে ফ্যাসিলিটেটরকে তাদের লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ্যে না প্রদান করার অনুরোধ করেছেন। এটি ঐ ফ্যাসিলিটেটরের কাছেও আশ্চর্যজনক একটি বিষয় ছিলো, কার তার ধারণা ছিলো তাদের সম্প্রদায়ে খুব বেশি নারী সদস্য নেই, কিন্তু সম্প্রদায়ের পরিবেশ নারীদের জন্য নিরাপদ। তবে দেখা গেছে ঐ সম্প্রদায়ে যথেষ্ট পরিমাণ নারী রয়েছে। এটি সাধারণ জ্ঞানের অংশ নয় যে নারীরা নিজেদেরকে প্রকাশ করতে চান না।

গৃহীত ধারণা

কমপক্ষে দুইটি সম্প্রদায় জানিয়েছে যে তারা স্থানীয় পরিচালনা কৌশলে ফাউন্ডেশনের হস্তক্ষেপ চায় না। এটি এড়াতে তারা নিজেদের পরিচালনা পদ্ধতি বা কৌশলকে আরও উন্নত করতে সম্ভাব্য সকল প্রকার পদক্ষেপ নিতে ইচ্ছুক। তাদের মধ্যে কমপক্ষে একটি সম্প্রদায় ইতোমধ্যেই তাদের আচরণগত নীতিমালাগুলোকে সর্বজনীন নীতিমালার সাথে সমপর্যায়ে আনার ব্যাপারে কাজ শুরু করেছে এবং স্থানীয় সমস্যাগুলো যেনো সন্তোষজনক উপায়ে স্থানীয়ভাবেই সমাধান করা যায় সে বিষয়ে একটি প্রয়োগের মডেল তৈরির বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে।

অপরদিকে, কিছু ছোট সম্প্রদায় জানিয়েছে যে, তারা তাদের সময় ও সম্পদ তাদের প্রকল্পের বিষয়বস্তুর উন্নয়নে ব্যয় করতে আগ্রহী। এজন্য তারা নীতিমালা তৈরি বা পরিচালনা ব্যবস্থা যেনো সর্বজনীন নীতিমালার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয় সেটি নিশ্চিত করতে ফাউন্ডেশনের সহযোগিতার প্রয়োজন অনুভব করে। বেশিরভাগ মধ্যম আকারের সম্প্রদায় বিভিন্ন আইডিয়ায় মধ্যে দ্বিধাবিভক্ত। তারা এমন একটি সমাধান আশা করে যা তাদের বর্তমান পরিচলনা পদ্ধতিকে ব্যাহত করবে না।

সহায়তাকারী দল

সম্প্রদায়ের একটি বিশাল সংখ্যক সদস্য যারা হয়রানির লক্ষ্যবস্তু তাদেরকে সহায়তা করার জন্য সহায়তাকারী দল বা পিয়ার সাপোর্ট গ্রুপ গঠনের ধারণা প্রকাশ করেছেন। কিছু ব্যবহারকারীর মতে, হয়রানির একটি অভিযোগ প্রদান করার পরে অভিযোগকারী বা হয়রানির লক্ষ্যবস্তু ব্যবহারকারী প্রায়শই তিনটি দলের সম্মুখীন হন — একটি হচ্ছে অপব্যবহারকারীর পক্ষ, ঘটনাটি নিরপেক্ষভাবে সমাধানের দিকে জোর দেন এমন পক্ষ, এবং অপর একটি পক্ষ যারা লক্ষ্যবস্তু হওয়া ব্যক্তির প্রতি নৈতিক সমর্থন প্রদান করেন। হয়রানির লক্ষ্যবস্তু হওয়া একজন ব্যক্তির জন্য, যিনি ইতোমধ্যেই সঙ্কটময় একটি সময় পার করছেন, তার জন্য এই তৃতীয় পক্ষটির উপস্থিতি গুরুত্ব অত্যন্ত বেশি। সম্প্রদায়ের সহযোগিতা দলগুলো ছোটখাট ঘটনার ক্ষেত্রেও মানুষকে কথা বলতে উৎসাহ প্রদান করে, যার ফলে বড় ধরনের কোনো ঘটনা সংগঠনের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

বিপুল সংখ্যক সম্প্রদায়ের সদস্য জানিয়েছেন যে এ ধররনের সহায়তাকারী দল পুরো উইকিমিডিয়া আন্দোলন জুড়েই সংগঠিত করা উচিৎ। কিছু সম্প্রদায় একটি নির্দিষ্ট প্লাটফর্ম বা মঞ্চ তৈরির পরামর্শ দিয়েছে যেটি সহায়তা গ্রহণের উদ্দেশ্যে আসা সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে, আবার কিছু সম্প্রদায় বলেছে যে একটি ছোট দল এ কাজে নিয়োজিত থাকলে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে সহায়ক হবে। এই বিষয়ক কথোপকথনে বিভিন্ন ধরনের ধারণা পাওয়া গেছে তবে একটি পূর্ণাঙ্গভাবে বিকশিত ব্যবস্থা, যদি তৈরি করা সম্ভব হয়, তবে তা করতে অনেক কাজ করার প্রয়োজন হবে; বিশেষ করে এ ধরনের একটি দলের অপব্যবহার রোধকল্পে।

এরপর কী

একটি খসড়া প্রণয়নকারী দল গঠন করা হবে যারা সম্প্রদায়ের কাছ থেকে গ্রহণকৃত মতমতগুলো পর্যালোচনা করবেন। দলটি পরবর্তীতে একটি সম্ভাব্য প্রয়োগ কৌশল বোর্ড অব ট্রাস্টির কাছে পর্যালোচনার জন্য প্রেরণ করবেন।